শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৫:২০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রূপপুর-বগুড়া গ্রিড লাইনে পরীক্ষামূলক বিদ্যুৎ সঞ্চালন শুরু ঈশ্বরদীতে চলতি মৌসুমে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস ঈশ্বরদীতে ইজিবাইক চালকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার ঈশ্বরদী বাজারে গ্রীল কেটে ও তালা ভেঙে চার দোকানে চুরি ঈশ্বরদীতে ঘন ঘন বিদ্যুৎ বিভ্রাটে ক্ষুদ্ধ গ্রাহক “গ্রামে বিদ্যুৎ যায় না আসে” ঈশ্বরদীতে ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের মৃত্যু মাদার তেরেসা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড পেলেন গোপাল অধিকারী ঈশ্বরদীতে গৃহবধু হত্যা ॥ জড়িতদের গ্রেপ্তার দাবিতে মানববন্ধন নিহত যুবলীগ নেতা খায়রুল হত্যার বিচার ও খুনিদের ফাঁসির দাবিতে হাজারো নারী পুরুষের বিশাল বিক্ষোভ মিছিল-মানববন্ধন সংবাদ সম্মেলনে দাবি ফিরোজকে গ্রেপ্তার ষড়যন্ত্রমূলক ও অনাকাঙ্খিত
শিরোনাম :
রূপপুর-বগুড়া গ্রিড লাইনে পরীক্ষামূলক বিদ্যুৎ সঞ্চালন শুরু ঈশ্বরদীতে চলতি মৌসুমে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস ঈশ্বরদীতে ইজিবাইক চালকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার ঈশ্বরদী বাজারে গ্রীল কেটে ও তালা ভেঙে চার দোকানে চুরি ঈশ্বরদীতে ঘন ঘন বিদ্যুৎ বিভ্রাটে ক্ষুদ্ধ গ্রাহক “গ্রামে বিদ্যুৎ যায় না আসে” ঈশ্বরদীতে ট্রেনে কাটা পড়ে যুবকের মৃত্যু মাদার তেরেসা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড পেলেন গোপাল অধিকারী ঈশ্বরদীতে গৃহবধু হত্যা ॥ জড়িতদের গ্রেপ্তার দাবিতে মানববন্ধন নিহত যুবলীগ নেতা খায়রুল হত্যার বিচার ও খুনিদের ফাঁসির দাবিতে হাজারো নারী পুরুষের বিশাল বিক্ষোভ মিছিল-মানববন্ধন সংবাদ সম্মেলনে দাবি ফিরোজকে গ্রেপ্তার ষড়যন্ত্রমূলক ও অনাকাঙ্খিত

 

ঈশ্বরদীতে শ্যালক ও দুলাভাইয়ের প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতে সর্বশান্ত ডেইরী খামার ব্যবসায়ী সাহান ।। টাকা ফেরত ও প্রতারকদের শাস্তির দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

সকাল প্রতিবেদন
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৩ মে, ২০২৩
  • ৬৩ বার

ঈশ্বরদীতে আশিক রহমান মন্ডল ও মাহাবুবুর রহমান শিমুল নামের দুই প্রতারকের প্রতারণার শিকার হয়েছেন প্রতিষ্ঠিত ডেইরী খামার ব্যবসায়ী মোঃ হুমায়ন কবীর সাহান। আশিক ও শিমুল সম্পর্কে শ্যালক ও দুলাভাই। প্রতারকদের শাস্তির দাবিতে গতকাল শনিবার দুপুরে শহরের অরনকোলাস্থ ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী হুময়ান কবীর সাহানের খামার চত্বরে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সমাজপ্রতি ও কয়েক’শ এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।
লিখিত বক্তব্যে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী সাহান জানান, অরনকোলা গ্রামে ‘মেসার্স মা ডেইরী ফার্ম’ ও “কাবির ডেইরী এন্ড এগ্রো ফার্ম” নামে আমার দুটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। যার একটির প্রোপ্রাইটর আমার স্ত্রী মোছাঃ সুমি খাতুন ও অপরটি আমি মোঃ হুমায়ন কবীর সাহান। এছাড়াও ঈশ্বরদী বাজারে ‘মিতি ইলেকট্রনিক্স’ নামের আরও একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। উক্ত প্রতিষ্ঠান গুলোর পরিচালক থাকা সত্বেও ব্যবসার পরিধি বৃদ্ধির কারণে আমার খালাতো ভাই ও পরবর্তীতে ভাইরা মোঃ আশিক রহমান মন্ডল (২২), পিতা- মোঃ আশরাফ আলী মন্ডল, সাং- অরনকোলা, থানা-ঈশ্বরদী, জেলা- পাবনা কে সমস্ত ব্যবসা পরিচালনার দায়িত্বভার অর্পন করি। উল্লেখ যে, এই আশিক ৭ বছর বয়স থেকে আমার কাছে মানুষ হয়েছে।
সাহান আরও জানান, ব্যবসার কাজে দেশের বিভিন্ন এলাকায় অবস্থান করার কারণে বিগত প্রায় ৩/৪ বছর আমার উক্ত ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুলোর যাবতীয় আর্থিক লেনদেন (ক্রয়-বিক্রয়) সম্পন্ন করতো আশিক মন্ডল। সেই সময় আমার বিভিন্ন ব্যাংকের ফাকা চেক বইতে স্বাক্ষর করা থাকতো তাঁর কাছে। যা অরনকোলাবাসী সবাই জানে এবং তদন্ত করলেই তার প্রমাণ মিলবে। লিখিত বক্তব্যে সাহান আরও জানান, সম্প্রতি বিভিন্ন ব্যাংকে গিয়ে জানতে পেরেছি আমার ও আমার স্ত্রীর স্বাক্ষরকৃত অনেক ফাঁকা চেক অব্যহৃত রয়েছে আশিক মন্ডলের কাছে। এসব বিষয় ঈশ্বরদী থানায় জিডি করা হয়েছে।
সাহান আরও জানান, সম্প্রতি হঠাৎ করেই বিভিন্ন মাধ্যমে আশিক মন্ডলের আর্থিক অনিয়মের বিষয়ে জানতে পারি। এরমধ্যেই আশিক মন্ডল এর আলাদা গরুর ফার্ম, একাধিক মটর সাইকেল, একাধিক ব্র্যান্ডের নতুন নোহা গাড়ী, বাড়িতে একাধিক এসিসহ বাড়িতে বিলাশ বহুল ডেকোরেশন চোখে পড়ে। সেই সময় কাবির ডেইরী ফার্মের মূল ব্যবসায় অনিহা দেখিয়ে এড়িয়ে চলতে থাকে আশিক। এসব বিষয় জানতে চাইলে আমার উপর রাগান্বিত হয়ে আমার চাকরি করবে না বলে সাফ জানিয়ে দেয়। সে সময় আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় হিসাব চাইলে সে হিসাব দিতে গড়িমসি করে। পরবর্তীতে খোঁজ-খবর নিয়ে জানতে পারি আশিক মন্ডল তাঁর দুলাভাই মাহাবুবুর রহমান শিমুল (৩৪), পিতা- আজগর আলী মুকুল, সাং- শেরশাহ্ রোড, তছের পাড়া, থানা-ঈশ্বরদী, পাবনা এর প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ যোগসাজসে আমাকে সর্বশান্ত করার প্রয়াসে বিভিন্ন ভাবে, বিভিন্ন সময়ে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ২ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে। যা সরেজমিন তদন্ত করলেই বেরিয়ে আসবে। তার কারণ ৩/৪ বছর আগে আশিক আর শিমুলের আর্থিক অবস্থা কি ছিল? আশিক আমার প্রতিষ্ঠানে মাত্র ১০ হাজার টাকা এবং শিমুল পাবনার এ আর গ্র“পের একটি মুরগির হ্যাচারীতে মাত্র ৯ হাজার টাকা বেতনে চাকরি করতো। তাহলে এত অল্প সময়ে গরুর ফার্ম, একাধিক মটর সাইকেল, একাধিক ব্র্যান্ডের নতুন নোহা গাড়ী, বাড়িতে একাধিক এসিসহ বিলাশ বহুল জীবন-যাপন কিভাবে সম্ভব?
এসব বিষয়ে গন্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে নিয়ে আশিক মন্ডলের কাছ থেকে হিসাব চাওয়া হলে সে প্রথমে ১ কোটি ২০ লাখ টাকার কথা স্বীকার করলেও পরবর্তীতে তাঁর মনমত হিসাব দাখিল করে। সেখানে আমি মাত্র ৫৩ লাখ ৫২ হাজার টাকা পাবো বলে আশিক মন্ডল স্বীকার করে। যা সে কিস্তির মাধ্যমে দেওয়ার অঙ্গিকার করে এবং প্রথম কিস্তির টাকা ব্যাংকের মাধ্যমে জমা দিয়েছে। এতেই কি প্রমান হয় না যে সে টাকা আত্মসাৎ করেছে?
সাহান আরও জানান, খাতাপত্র সহ যাবতীয় হিসাব-নিকাষ পর্যালোচনা করে দেখা যায় আশিক মন্ডলের কাছে আমার পাওনার পরিমাণ প্রায় ২ কোটি টাকা। যা সে তার দুলাভাই শিমুলের যোগসাজসে বিভিন্ন সময় আত্মসাৎ করেছে। গত ৪ মে আশিক মন্ডল এর টাকা দেওয়ার কাথা থাকলেও তা না দিয়ে তাঁর দুলাভাই মাহাবুবুর রহমান শিমুলসহ আরও ৮/১০ জন যুবককে সাথে নিয়ে এসে টাকা দিবে না বলে চরম বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করে। সে সময় তারা হুমকি দেয় আশিকের কাছ থেকে কিভাবে টাকা নেয় তা দেখে নেওয়া হবে। উল্লেখিত ঘটনার বিবরণ দিয়ে আমি ঈশ্বরদী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করি। যার নম্বর- ৪৪৮, তাং-৭/৫/২৩ইং। পুলিশ ঘটনার তদন্তে আসলে তারা আরও ক্ষিপ্ত ও উত্তেজিত হয়ে গত ৮/৫/২৩ ইং তারিখ রাত ৯টার সময় আশিক মন্ডল ও তাঁর দুলাভাই মাহাবুবুল রহমান শিমুল এর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে এসে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে আমাকে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। পরবর্তীতে উক্ত ঘটনার বিবরণ দিয়ে আমি ঈশ্বরদী থানায় আরও একটি একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করি। যার নম্বর- ৬১৮, তাং-৯/৫/২৩ইং। পুলিশ পুরো বিষয়টি তদন্ত করছে।
লিখিত বক্তব্যে সাহান আরও বলেন, এত কিছুর পরও আশিক ও শিমুল আমার বিরুদ্ধে নানা ধরণের ষড়যন্ত্র করছে। বিভিন্ন মাধ্যমে জানতে পেরেছি আমাকে মারার জন্য শিমুল ভাড়াটে সন্ত্রাসী ঠিক করছে। অবশ্য এমন ঘটনা শিমুল আগেও করেছে। তার কারণ শিমুলের পারিবারিক একটি জমি সক্রান্ত বিষয়ে তার প্রতিপক্ষকে হত্যার জন্য একটি পিস্তল কেনার কথা পূর্বে আমার সামনে বলেছিল। আর এখন আমাকে মারার জন্য ভাড়াটে সন্ত্রাসী ঠিক করবে এটা ওর জন্য খুব স্বাভাবিক।

বর্তমানে আশিক ও তার দুলাভাই শিমুলের গভীর চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্রে আমিসহ আমার পরিবার চরমভাবে দিশেহারা। আপনাদের মাধ্যমে আইন-শৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহযোগীতা কামনা করে প্রতারক আশিক মন্ডল ও মাহাবুবুর রহমান শিমুলের অর্থের সঠিক উৎস অনুসন্ধান সহ আমার টাকা ফেরতের জোর দাবী জানাচ্ছি।
অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও পৌরসভার প্যানেল মেয়র মোঃ আবুল হাসেম, পাবনা জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য শফিউল আলম বিশ্বাস, সমাজ সেবক মিজানুর রহমান মিনহাজ, মাসুদ জোয়ার্দ্দার, কাশেম প্রমানিক ও মোছাঃ সুমি খাতুনসহ বিশিষ্ট জনেরা।

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..